শনিবার   ২৪ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৮ ১৪২৬   ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

৭২

‘সংসদ প্রাণবন্ত রাখতে কথা বলতে দিতে হবে’

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩১ জানুয়ারি ২০১৯  

জাতীয় সংসদকে প্রাণবন্ত রাখতে বিরোধী দলকে কথা বলতে দিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন একাদশ সংসদের বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের।
এর পরিপ্রেক্ষিতে সংখ্যায় কম থাকা সত্ত্বেও সংসদে বিরোধীদের পরামর্শ যুক্তিযুক্ত হলে, তা গ্রহণ করার জন্য প্রধানমন্ত্রী তথা সরকারকে আহ্বানও জানান তিনি।

বুধবার সংসদে স্পিকারর উদ্দেশে দেয়া এক বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।


 
এসময় তৃতীয়বারের মতো স্পিকার নির্বাচিত হওয়ায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিনকে স্বাগত জানিয়ে তিনি বলেছেন, আমরা চাই সংসদ হোক প্রাণবন্ত। সংসদকে কার্যকর ভূমিকা রাখতে হবে।

সরকারের উদ্দেশে জাতীয় পার্টির (জাপা) এই নেতা বলেন, সংসদে সরকারি দলের এমপির সংখ্যা আড়াইশ’র বেশি। সে তুলনায় আমাদের সংখ্যা কম। কিন্তু আমরা মনে করি, এটা কখনোই সংসদ প্রাণবন্ত করার ক্ষেত্রে বাধা হবে না। আমরা বিশ্বাস করি, সংসদকে সবকিছুর কেন্দ্রবিন্দু করতে হয়, তাহলে আমাদের বলতে দিতে হবে এবং যথেষ্ট সময় দিতে হবে। আমরা যদি আমাদের কথাগুলো তুলে ধরতে পারি, সংসদ প্রাণবন্ত হবে। জনগণও সংসদের প্রতি আগ্রহী হবে। আমাদের বিশ্বাস, স্পিকার আমাদের সেই সুযোগটি করে দেবেন।

স্পিকারের উদ্দেশে জিএম কাদের বলেন, আপনি ইতোপূর্বে এমপি, মন্ত্রী ও স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেছেন। আগেও আপনি স্পিকারের দায়িত্ব পালনকালে দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। আমরা আশা করি, সামনের দিনেও আপনি নিরপেক্ষতা ও দক্ষতার পরিচয় দেবেন।

এসময় টানা তৃতীয় ও চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ায় তিনি আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানান।


 
বিরোধীদলীয় নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সংসদে অনুপস্থিত ছিলেন। চিকিৎসার জন্য তিনি সিঙ্গাপুরে রয়েছেন। নিয়ম অনুসারে তার পাশের আসনে বিরোধীদলীয় উপনেতার বসার কথা। কিন্তু এরশাদের পাশের চেয়ারে বসেন সাবেক বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ। ফলে তৃতীয় চেয়ারে বসেন উপনেতা জি এম কাদের।

আজকের নড়াইল
আজকের নড়াইল
এই বিভাগের আরো খবর