বৃহস্পতিবার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৪ ১৪২৬   ১৯ মুহররম ১৪৪১

৩০৮

নাকে জড়িয়ে নাকফুল, হয়ে উঠুন সম্পূর্ণা

প্রকাশিত: ৮ ডিসেম্বর ২০১৮  

সংস্কৃতি কিংবা ধর্মীয় দিক থেকে নাকফুল বেশ পুরোনো অনুষঙ্গ। আগের দিনে একজন নারী বিবাহিত নাকি অবিবাহিত তা বোঝা যেত নাকের নাকফুল দেখে। তবে সময়ের সঙ্গে পরিবর্তিত হয়েছে অনেককিছু। এখন সববয়সী নারীরাই ফ্যাশনের অনুষঙ্গ হিসেবে নাকে পরেন নাকফুল, নথ কিংবা নোলক। 

কেউ কেউ হীরের ছোট্ট নাকফুল পরেন। অনেকে আবার পোশাকের সঙ্গে মিলিয়েও পরেন নাকফুল। আগে কেবল সোনা আর রূপার নাকফুল পরা হলেও এখন সবধরনের নাকফুলই পরা হয়। পাথরের নানা রং, খানিকটা বড় গড়নের রূপার ফুল, সোনালির মাঝে নানা রঙের কাজ— এসবই পছন্দ তরুণীদের। 

বাজারে রেডিমেড নাকফুল পাওয়া যায়। কেউ চাইলে অর্ডার দিয়েও বানিয়ে ফেলতে পারেন নিজের পছন্দসই গড়নের আর নকশার নাকফুল। 

নাকফুলের নানা ধরন- 

বিভিন্ন আকারের নাকফুল পাওয়া যায় বাজারে। ‘ইউ’ ব্যান্ড, দি লুপ, দি পিন, একাধিক পাথরসহ নাকফুল, দি ক্লাসিক, দি ফ্লাওয়ার প্রভৃতি। পোস্টের ভিত্তিতে এই নাকফুলগুলো আবার ভিন্ন হয়। পোস্ট বলতে নাকের ভেতর গেঁথে দেওয়া অংশকে বোঝানো হয়। কিছু পোস্ট হয় পিন জাতীয়, কিছু এল শেপ বা স্ক্রু। 

ফিক্সড নাকফুল যারা পরেন তাদের ক্ষেত্রে পিন নাকফুল পারফেক্ট। অন্যদিকে এল শেপের নাকফুল তৈরি হয় একটি স্ট্যান্ডের ওপর ভিত্তি করে। যারা নিয়মিত নাকফুল বদলান তাদের জন্য এমন নাকফুল উপযুক্ত। স্ক্রু পোস্ট ঢুকানো হয় ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে। এ ধরনের নাকফুল খুলে পড়ার সম্ভাবনা থাকে না। তাই দামি নাকফুলগুলোতে এমন পোস্ট ব্যবহার করা হয়। 

নাকফুলের পাশাপাশি অনেকে নথও পরেন। এগুলো একটু ভারী ও বড় হয়। আগেকার দিকে বিয়েতে ভারী নোলক পরাও প্রচলন ছিল। 

কেমন নাকফুল পরবেন? 

যাদের নাক ছোট আর খানিকটা চ্যাপ্টা তারা ছোট এক পাথরের নাকফুল পরলে ভালো মানাবে। 

নাক বড় ও সূচালো এমন নারীদের জন্য উপযুক্ত বড় গড়নের নাকফুল। 

সবসময় পরতে চাইলে ছোট এক পাথরের নাকফুল পরুন। 

উৎসবে চাইলে পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে বড় নাকফুল পরতে পারেন। 

নাক ফোঁড়ানো হয়নি এমন কেউ চাইলে টিপ নাকফুল পরতে পারেন। 

তবে আর কী, পছন্দসই নাকফুল পরুন আর হয়ে উঠুন সম্পূর্ণা। তবে হ্যাঁ, দামী নাকফুল পরলে সাবধানে থাকবেন যেন হারিয়ে না যায়। 

আজকের নড়াইল
আজকের নড়াইল