বৃহস্পতিবার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৪ ১৪২৬   ১৯ মুহররম ১৪৪১

২৫৩

নষ্ট মেকআপের ব্যবহার!

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২১ ডিসেম্বর ২০১৮  

ভালো ব্র্যান্ডের দামী মেকআপ পণ্যগুলো মেয়াদ শেষে নিশ্চয়ই ফেলে দেন! তবে জানেন কি? নষ্ট বা মেয়াদোত্তীর্ণ মেকআপ পণ্যগুলো কিন্তু পুনরায় ব্যবহার করতে পারেন। জেনে নিন নষ্ট হয়ে যাওয়া মেকআপ কীভাবে পুনরায় ব্যবহার করবেন তা নিয়ে কিছু টিপস-

 

প্রিয় দামি ব্র্যান্ডের লিপস্টিক হঠাৎ ভেঙে গেল তখন কি করবেন? এমনটি তো হরহামেশাই হয়ে থাকে। সেই মুহূর্তটি খুবই কষ্টকর তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। আবার প্রিয় মেকাপ বক্স বা কমপ্যাক্ট পাউডার হাত থেকে পড়ে একেবারে গুঁড়া গুঁড়া হয়ে গেছে তখন কেমন অনুভূতি হয়? নিশ্চয়ই কষ্টকর। আসলে যত দামী ব্র্যান্ডের মেকাপই হোক না কেন তা কিছু দিনের মধ্যে নষ্ট হয়ে যায় বা হাত থেকে পড়ে ভেঙে যায় বা ফুরিয়ে যায়। তারপর আবার এগুলো ফেলে দিতে কেমন লাগে? তাই চট করেই হাতের কাছে কিছু জিনিস দিয়ে ভেঙে যাওয়া বা নষ্ট হয়ে যাওয়া মেকআপ ঠিক করে নিতে পারেন। চলুন তাহলে দেখা যাক কিভাবে সেট করবেন আপনার মেকআপ পণ্যগুলো:

১) মাস্কারা:

মাস্কারার ব্যবহার

মাস্কারার ব্যবহার

মেয়াদ উত্তীর্ণ হবার আগেই অনেক সময় দামী মাশকারা শুকিয়ে ড্রাই হয়ে যায় বা দলা পাকিয়ে যায়। তার একটাই কারণ বারবার মাস্কারার টিউব ভেতরে ঢুকাই ও বের করি বাতাস ঢোকার ফলে এমনটি হয়। তাই বারবার অ্যাপ্লিকেটরটি টিউব এর ভেতরে না ঢুকানোর চেষ্টা করবেন। একবার করে মুখে লাগিয়ে টিউবের মুখ বন্ধ করে দিন বা লাগানোর সময় হাত দিয়ে চেপে ধরুন। তাও যদি মাস্কারা ঘন হয়ে যায় শুকিয়ে যায় তবে কয়েক ফোঁটা আই ড্রপ বা নুন জল টিউবে ঢুকিয়ে ঝাঁকিয়ে নিন দেখবেন পুরোপুরি নতুন অবস্থায় যেমন ছিল ঠিক সেরকম তরল হয়ে যাবে।

২) ফাউন্ডেশন:

ফাউন্ডেশন লুক

ফাউন্ডেশন লুক

ফাউন্ডেশন এর বোতল ফুরিয়ে আসছে মনে হলে ফেলে দেবেন না। টিউবে হয়তো খানিকটা ফাউন্ডেশন লেগে আছে। প্লাস্টিকের টিউব হলে কেটে ফাউন্ডেশন বের করে একটি কৌটায় রেখে দিতে পারেন। কাঁচের বোতলের হলে একটি প্লাস্টিকের পাইপ মাঝখান বরাবর কেটে ফাউন্ডেশন বের করে আনতে পারেন খুব সহজে। যেকোনো ক্রিম বা লোশন এর সঙ্গে এটি মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

৩) কম্প্যাক্ট পাউডার:

কমপ্যাক্ট পাউডারের ব্যবহার

কমপ্যাক্ট পাউডারের ব্যবহার

হঠাৎ একদিন হাত থেকে পড়ে কমপ্যাক্ট পাউডার ভেঙে গুঁড়ো গুঁড়ো হয়ে গেছে। মন খারাপ না করে রাবিং এলকোহল বা আইসোপ্রোপাইল সংগ্রহ করুন। কয়েক ফোঁটা রাবিং এলকোহল দিয়ে ভেঙে যাওয়া কম্প্যাক্ট, ব্রোঞ্জার, ব্লাশ প্যালেট সীমার, ইত্যাদি খুব সহজেই পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনা যায়। যেকোনো বড় বড় ডিপার্টমেন্টাল স্টোর বা অনলাইনে কিনতে পারেন এই রাসায়নিক পদার্থটি। ভেঙে যাওয়া কম্প্যাক্ট বা ব্লাশ প্যালেটে কয়েক ফোঁটা অ্যালকোহল মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে নিন। তারপর যেগুলো কন্টেনারের উল্টো পৃষ্ঠ বা আঙ্গুল দিয়ে চেপে চেপে বসিয়ে দিন সেই কম্প্যাক্ট এর বক্সে। তারপর একটি টিস্যু পেপার দিয়ে চাপ দিয়ে উপর দিকটা সমান করে নিন। এভাবে ফেস পাউডার কমপ্যাক্ট পাউডার বা জোড়া লাগাতে পারেন। আবার ভেঙে যাওয়ার শ্যাডো পেট্রোলিয়াম জেলির সঙ্গে ব্যবহার করে লিপস্টিক তৈরি করে নিতে পারেন। ৪) লিপ লাইনার বা কাজল:

লিপ লাইনারের ব্যবহার

লিপ লাইনারের ব্যবহার

উষ্ণ ও আর্দ্র স্থানে লিপ লাইনার বা কাজল আইলাইনার প্রায়ই নরম হয়ে গলে যায়। তাই এ জাতীয় জিনিসগুলো ঠাণ্ডা স্থানে রাখার চেষ্টা করবেন। সবচেয়ে ভালো হয় যদি ফ্রিজের এক কোণে বক্সে লিপ লাইনার বা কাজল রেখে দিতে পারে। লিপিস্টিক, আই ক্রিম, ফাউন্ডেশন, লোশন, ময়েশ্চরাইজার এ জাতীয় বস্তুগুলো ফ্রিজে রেখে দিতে পারেন এতে বহু দিন ভালো থাকে। তবে সবগুলো কৌটার মুখ শক্ত করে বন্ধ রাখতে হবে কিন্তু।

৫) লিপস্টিক:

লিপস্টিক

লিপস্টিক

ঠোঁটে লিপস্টিক লাগাতে গিয়ে মাঝ বরাবর বা আগার দিকটা ভেঙ্গে যায় বা হাত থেকে পড়ে ভেঙে যায়। তখন কি করা যায়? চিন্তার কোনো কারণ নেই। ভাঙা অংশটুকু একটি মোমবাতি সাহায্যে নিচের দিকটা গলে লিপ্সটিক এর কোটায় রেখে হালকা চাপ দিয়ে রেখে দিন কিছুক্ষণ। যদি এটি করতে না পারেন তবে পুরো লিপিস্টিক একটি কাঠির সাহায্যে বের করে চামচে গলিয়ে নিন। ছোট একটি পরিষ্কার কৌটায় গলানো লিপ্সটিক ঢেলে ঠাণ্ডা করে নিন। তারপর ব্রাশের সাহায্যে বা হাতে লাগিয়ে নিতে পারেন লিপস্টিক।

আজকের নড়াইল
আজকের নড়াইল